You are currently viewing আজ ১০শে জুলাই, শহীদ হালিম দিবস

আজ ১০শে জুলাই, শহীদ হালিম দিবস

শহীদ মুহাম্মদ আবদুল মোস্তফা হালিম
শাহাদাত দিবস : ১০শে জুলাই
______________________

নাম মুহাম্মদ আবদুল মোস্তফা হালিম; বাড়ি চট্টগ্রামের রাউজান থানায়। পড়তেন বাড়ির অদূরে চন্দ্রঘোনা তৈয়্যবিয়া ফাজিল মাদরাসায়। ছিলেন ১০ম শ্রেণীর ছাত্র, রোল নং ছিল এক। ক্লাসের সকল ছাত্রদের যিনি নেতৃত্ব প্রদান করতেন তিনি হলেন মুহাম্মদ আবদুল মোস্তফা হালিম। প্রিয় হালিম এক সময় মেধাবী ছাত্র থেকে হয়ে গেলেন মেধাবী ছাত্রনেতা ও তার্কিক। খুব অল্প সময়ে ছাত্র-শিক্ষক সকলের হৃদয়ে ভালবাসার জায়গা করে নেন। জ্ঞান গরিমা, বাগ্মিতা, সাহস তাঁকে আরো একধাপ এগিয়ে দেয়। সাথেসাথে মেধাবী ছাত্রসংগঠন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনার কর্মী হিসেবে যোগদান করলেন।
দলদল
এখন কিছুটা দায়িত্বও বেড়ে গেল, কারণ ছাত্রসেনার কর্মসূচী বাস্তবায়নে নিজেকে নিয়োগ করলেন পুরোদমে। কারণ রাসুল সাল্লাল্লাহু তাআলা আলাইহি ওয়াসাল্লামের আদর্শ বাস্তবায়নে মাঠে কাজ করে যাওয়া একমাত্র সংগঠন এটি। বাতিল-সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদী সংগঠন জামাত-শিবিরের মোকাবেলায় অত্র সংগঠনটি ছিল একমাত্র হক্বপন্থী ছাত্ররাজনৈতিক দল। হিংস্র জামাত-শিবিরের অপব্যাখ্যার অস্তিত্ একদিকে সঠিক আদর্শের উত্থানে বিপন্ন হতে চলেছিল, ঠিক তার অন্যদিকে এসবের পেছনে জোরালো ভূমিকা রাখছিলেন শহীদ মুহাম্মদ আবদুল হালিম।

কোরআনে কারীমে বর্ণিত “ক্বাদ জা আকুম মিনাল্লাহি নূর” অর্থ্যাৎ আল্লাহর পক্ষ থেকে নূর এসেছে” মর্মে, রাসুল সাল্লাল্লাহু তাআলা আলায়হি ওয়াসাল্লামকে বুঝানো হয়েছে এ মতের সাথে বিশ্বের সমস্ত ইলমে বিশারদগণ ঐক্যমত পোষণ করেছিলেন। এমনি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি মাটির তৈরী নাকি নূরের তৈরী এ নিয়ে শহীদ হালিমের বিতর্ক হয়েছিল জামাতের অঙ্গসংগঠন ছাত্রশিবিরের এক কর্মীর সাথে। হালিমের যুক্তি, দলিলের কাছে হার মেনে লজ্জাবৃত হয়ে মাদরাসা থেকে পলায়ন করেছিল সে কর্মী। ক্লাসমেট হওয়ার সুবাধে পরবর্তী সেই হিংস্র শিবির কর্মী তারই সাথে রাতযাপন করে সুযোগ নিলো প্রতিশোধ নেওয়ার।

১০শে জুলাই ১৯৮৪ সালে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জবেহ করে শহীদ হালিমকে। কোরআন-হাদীসের দলিলের কাছে হার মেনে সর্বশেষ এহেন হিংস্রতার আশ্রয় নিয়েছিলো শিবিরের ওই ক্যাডার।

আজকের এই দিনে আমরা স্মরণ করছি শহীদ আব্দুল মোস্তফা হালিমকে; ইসলামের সঠিক ব্যাখ্যা ও তার প্রচার-প্রসারে আপনার এই কুরবানি আমরা আজীবন স্মরণ করে যাবো, ইন শা আল্লাহ। আল্লাহ আমাদেরকে আপনার পদাঙ্ক অনুসরণ করার তাওফিক দিক, আমিন।

#chattrasenacentral #IT_Cell_Sena

Leave a Reply